Connecting Regions of Asia.

Flutter in Bangladesh military-security circles over Nirmala Saha’s Article

3,676

A detailed article on the Bangladesh army , perhaps the first such piece in many years, by a France 24 stringer Nirmala Saha has set abuzz the military-security circles in Dhaka.
Not the least it comes right in the midst of the Covid pandemic crisis when the army is deployedto help the government tackle the pandemic but whether Bangladesh can successfully tackle the crisisin still in question.
“Bangladesh army is becoming captive to one alma mater again” is a screeching headline ,pointing to several top generals belonging to the Jhenaidah Cadet College, hinting at a sortof cabal that is seeking the ouster of the army chief General Aziz Ahmed.

https://theworldnews.net/gh-news/bangladesh-army-is-becoming-captive-to-one-alma-mater-again  

Bangladesh Army Is Becoming Captive To One Alma Meter Again

Bangladesh Army Is Becoming Captive To One Alma Meter AgainThe allegations levelled by Nirmala Saha, former France 24 stringer, are of a serious nature specially because Bangladesh has a history of bloody factional infighting (during Zia’s time when scores of military officers and soldiers were hanged on charges of mutiny) and also a history of generals upturning legitimately elected government and trying to rule directly or indirectly. The last such attempt was during the caretaker regime (2006-2008) when the army-backed caretaker clearly exceeded its brief and clung to power when they were just supposed to conduct a fair elections and hand over the baton to the elected government.When that happened finally and Hasina’s Awami League swept the Dec 2008 polls, the prime minister focussed on the controlling the army with a mix of stick and carrot .Stick involving sidelining officers who evoked suspicion on the basis of their track record, family history and professional linkages and easing them out with early retirement and diplomatic postings. Carrot involved boosting the UN Peace Keeping role of the Bangladesh army, which means many officers and soldiers could make good money and return to comfortable lives without having to control resources through a junta back home , and handing over civic and infrastructure projects like Hatirjheel in Dhaka . The trap was clear — if the army delivered on these projects with speed and efficiency, they got the pat on the back and officers handling it could forward to various rewards in job and after it , but if it failed, the officers would face the swear and reminded that they were no better than the ‘bloody civilians’ whom they would mock at and sneer.  Saha’s core contention is  that ” a  nexus of top military officers under the leadership of Lt. Gen Mahfuzur Rahman, who currently is the Principal Staff Officer at Armed Forces Division is mutely working with multiple agendas that include, disgrace the current Chief of Army Staff Gen Aziz Ahmed, generate total anarchy within the armed forces, push the country towards a major economic crisis and famine during the period of Covid-19 pandemic, and finally overthrow the current government through a bloodless coup and establish a pseudo-military rule.”  But if this was not enough , Saha’s subsequent charges are more serious :”Gen Mahfuzur enjoys the confidence of Washington and Beijing for years, though he is rumored to have extreme intimacy with the American Central Intelligence Agency. Other members of the nexus are Maj Gen Shafeenul Islam (Director General, Border Guard Bangladesh), Maj Gen. Mohammad Saiful Alam (Director General, DGFI), Lt. Gen Sheikh Mamun Khaled, Lt Gen Nazimuddin (Retired) and a politician named Sheikh Helal. All of them are from Jhenidah Cadet College. Members of this nexus enjoy support from the American CIA and Chinese MSS.”Then she goes another step ahead . ” Chinese intelligence agency MSS in a report published on the third week of March has revealed stating, within the first week of May, Covid-19 pandemic will spread throughout Bangladesh and result in a volatile situation, which will force in the declaration of State of Emergency.”Mediapersons like me who follow Bangladesh and its military-security architechure for years are aware of the tensions between Gen Aziz and Lt Gen Mahfuz because the former elbowed the latter in the race to the top post — many believe with a bit of a push from friend India because Aziz is seen “as more trustworthy” by Delhi . The perception that Delhi influenced the decision to break the ‘Chinese-Pakistani caucus ‘ in the Bangladesh army has found some traction in Dhaka but without the infighting spilling out of control. Hasina struck a balance by bringing Lt Gen Mahfuz into the armed forces division of the PMO and Mahfuz teamed up well with her late MSPM Jainal Abedin (Sutki to his friends for his slim frame).  Aziz and his cohorts have suspected the rival group was responsible for planting media stories about the general’s brother whose criminal antecedents and the process of his pardon secured through political manouveres has embarassed the general . Now the anti-Aziz group suspects that the Army chief is responsible for the Nirmala Saha story.The story falls between the two stools because one cannot believe that the US and Chinese intelligence will back the same group and work for a common objective of bringing down Hasina when the two Superpowers are each other’s throat before and after Covid. Though the US and Chinese were on the same side during the 1971 war and long after that , equations have changed drastically as Uncle Sam and the Dragon wrestle for influence in Asia .  Secondly, Saha quotes a Chinese report of late March to predict a worse scenario of total chaos followed by pesudo military takeover by May. Where is this report ? Surely not in public domain. The Chinese dont leave sensitive reports for journalists like Saha to pick up on the Net or Social Media — so the question follows is whether she has access to Chinese intelligence !  If so, what is the nature of the relationship ! Is she on their rolls or are they using her to plant a story — the usual influence operations Chinese intelligence is quite subtle at but something the Americans are better at because of their better understanding of the workings of free media. The Americans dont like Hasina and have tried to rock her boat for while before accepting the fait accompli — some say under intense Indian pressure . The Chinese backed Hasina strongly when the West raised a stink over the 2014 polls — the Indians backed her but the Chinese ambassdor’s reactions ( ‘Sino-Bangladesh relations will be carried to new heights’)  was far more profuse than the Indians ( ‘polls were a constitutional necessity’). On the Hasina question, India , China and Russia were on the same page . The West was questioning her democratic credentials and talking of rigged one sided polls — these trio were talking about the stability and economic growth she has delivered for her people.So Saha, whose English is unusually local for a foreign media stringer , displays weak understanding of regional power equations. That makes her subsequent disclosures look suspect, though not all of it is worth dismissing. She correctly identifies some opponents of the Hasina regime —  Col Shahid Uddin Khan (a retired officer and a coursemate of Gen Aziz, who has been living in the United Kingdom of self-exile since 2018), David Bergman (a British journalist and son in law of Dr. Kamal Hossain, an opposition politician), Tasneem Khalil (a journalist who took asylum in Sweden in 2008), Pinaki Bhattacharya (a physician who took asylum in France) and few more individuals ( may be former chief justice S K Sinha) .They all have different reasons to have turned against the Hasina regime . But Saha fails to provide any conclusive evidence of overt or surreptitious links between Lt Gen Mahfuz and his schoolmates and these known opponents of the Hasina regime.
All is not well in the Bangladesh army, though. A mutiny-wracked force divided between freedom fighters and Pakistani repatriates with opposition military perception of threats and professional culture has evolved into a reasonably efficient fighting machine over the years through sustained efforts of some professional chiefs who stressed on professional capabilities and curb the factionalism that was as much rooted in personal ego clashes as in the ‘Muktijoddha-Razakar’ divide.  But belatedly, several senior generals have opposed Gen Aziz’s way of handling the force and complained furiously to PM Hasina . 
One classic case is that of the chief of Bangladesh army’s ARTDOC chief Maj Gen Nazimuddin, who has apparently been forced to go on leave prior to retirement (LPR) more than two years before he is due to retire.Easternlink , through its considerable source in Bangladesh, is in possession of the letter written by Nazimuddin to PM Hasina and is producing the original Bengali version in words rather than photocopy ( because of poor quality) . The letter will reveal the strains in the army which has emerged from quagmire of factionalism and infighting into a force rated high by the UN  and reflected in greater commitment to UN peacekeeping. 
———————————————————————————————————————-
প্রতিঃশেখ হাসিনা, এম পিমাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও প্রতিরক্ষামন্ত্রীগনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। বিষয়ঃ স্বাভাবিক অবসর প্রত্যাহার পূর্বক সেনাবাহিনীতে পূনঃবহাল প্রসংগে। শ্রদ্ধেয় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, ১। আস্ সালামু আলাইকুম। আমি লেঃ জেঃ মোঃ নাজিম উদ্দীন, পিএসসি। আমার বর্তমান পদবীতে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর জিওসি, আরডক হিসাবে কর্মরত থাকা অবস্থায় চাকুরির বয়স ২ বছর ১ মাস ২১ দিন অবশিষ্ট থাকতে কোনধরনের পূর্বাভাস বা দাপ্তরিক পত্রালাপ ব্যতীরিকে গত ১৩ জুন ২০১৯ ইং তারিখে সেনাসদর সামরিক সচিবের কার্যালয় থেকে টেলিফোনে জানানো হয় যে , আমাকে চাকুরী সীমা শেষে (বয়সসীমা অতিক্রান্তির পূর্বে) স্বাভাবিক অবসর প্রদান করা হয়েছে। ব্যাপারটি আমার জন্য মোটেও স্বাভাবিক ছিল না। দীর্ঘ ৩৬ বছর সততা ও নিষ্ঠার সাথে চাকুরির পর এহেন সংবাদ শ্রবনমাত্র হতবাক, বাকরুদ্ধ ও কিংকর্তব্যবিমূঢ় হয়ে পড়ি। যে কোন আপনজনের মৃত্যু সংবাদ প্রত্যাশিত ছিল, তবে এটা নয়। আমি সারা জীবন সততা, নিষ্ঠা, একাগ্রতা ও সাহসিকতার সাথে অর্পিত সকল দায়িত্ব পালন করেছি। সকল যোগ্যতা থাকা সত্ত্বেও বিএনপি – জামায়াত সরকার আমাকে আওয়ামী লীগের সমথর্ক হিসেবে লেঃ কর্নেল পদবীতে স্থায়ীভাবে অতিক্রান্ত করেছিল। অপনি তা উপলব্ধি করে আমাকে লেঃ কর্নেল থেকে কর্নেল, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল, মেজর জেনারেল ও লেঃ জেনারেল পদবীতে পদোন্নতি প্রদান করেন। আমি দেশের এক ক্রান্তিলগ্নে বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর মহাপরিচালক ছিলাম।  পরবর্তীতে আপনি আমাকে যশোহরে জিওসি, বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সিজিএস এবং জিওসি আরডকের মত গুরু দায়িত্ব প্রদান করেন। ২। বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর মহাপরিচালক হিসাবে এককভাবে ২০১৫ সালে বিএনপি-জামায়াত রেল সন্ত্রাস মোকাবিলা করি। এই দায়িত্ব সুচারুভাবে পালনের কারণে ২০১৬ সালে রেলের পাশাপাশি মহাসড়ক নিরাপত্তাতেও আমাকে সম্পৃক্ত করা হয়। আমার মনে পড়ে, আপনি ২০১৬ সালে বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর ৩৬ তম মহাসমাবেশ প্যারেড শেষে স্টেজে দাঁড়িয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে বলেছিলেন – “ও তো পুরা আনসার – ভিডিপি বাহিনীকে বদলে ফেলেছে”। গর্বে আমার বুক ভরে গিয়েছিল। নিজ সম্পর্কে শ্রদ্ধেয় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর এমন মন্তব্য শুনতে কার না ভালো লাগে। আমার জীবন আমার সম্পর্কে শোনা এটাই সর্বশ্রেষ্ঠ উক্তি। এই উক্তির অনুভূতি আমি আমার বুকে আমৃত্যু লালন করবো। তাই এল পি আরের খবর আমাকে বিস্মিত করে। প্রসংগত উল্লেখ্য যে, মাননীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আমাকে ভাল জানেন। নিরাপত্তা উপদেষ্টা জেনারেল তারেক বরাবর আমাকে পরবর্তী সেনাপ্রধান হওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন। তৎকালীন এম এস পি এম মেজর জেনারেল আবেদীনও আমাকে খুব ভালো জানতেন। বিগত দিনগুলোতে বর্তমান সেনাপ্রধানের সাথেও আমি সর্বোচ্চ আনুগত্যতা ও সহযোগিতার মনোভাব নিয়ে কাজ করেছি।৩। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, আপনার প্রথম মেয়াদে (১৯৯৬ – ২০০১) আমি ঢাকা সেনানিবাসে ১৬ ই বেংগলের উপ-অধিনায়ক ছিলাম। পরে পদোন্নতি পেয়ে সিলেটে ২২ বীরের অধিনায়ক হই। সালটা ২০০১। অষ্টম সংসদীয় নির্বাচনে আমার ইউনিটকে নির্বাচনী দায়িত্বে মোতায়েন করা হলেও আভ্যন্তরীন নিরাপত্তার অজুহাতে আমাকে সেনানিবাসে রেখে যাওয়া হয়। ঝিনাইদহ ক্যাডেট কলেজে লেখাপড়া করেছি, আপনার প্রথম মেয়াদে ঢাকায় ছিলাম, ঐ সময়ই আমি লেঃ কর্নেল পদে পদোন্নতি পাই – ইত্যাদি কারনে আমাকে কট্টর আওয়ামী পন্থী হিসেবে চিহ্নিত করা হয়। আর এ কারনেই আমাকে অধিনায়ক ৫ ই বেংগল করে খাগড়াছড়িতে প্রায় ৩ বৎসর রাখা হয় এবং লেঃ কর্নেল পদবীতে স্থায়ীভাবে অতিক্রান্ত করা হয়।৪। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, আমি জানি আপনি আমার উপর কতটা আস্থা রেখেছিলেন এবং ভালোবেসে ছিলেন। আমি বাংলাদেশ আনসার ও ভিডিপির পরপর ৪ টি মহাসমাবেশ করাই। প্রতেকবার আপনার সাহচর্য আমাকে আপনার প্রতি অধিক থেকে অধিকতর আনুগত্য ও শ্রদ্ধা বাড়িয়েছে। আমি এখনও আপনার অভূতপূর্ব নেতৃত্বে অনুগত থেকে কাজ করার আনন্দকে লালন করে উৎসাহিত হই। তাই এই অপ্রত্যাশিত খবরে আঘাত ও কষ্টটা অতিরিক্ত বেশি পাই। আমি আরও উল্লেখ করতে চাই যে, আমার বেতন বহির্ভূত দ্বিতীয় কোন আয়-উপার্জন নাই। ডি ও এইচ এস এর জমিতে এখনও বাড়ি করতে পারি নাই। এল পি আর শেষে আমাকে ভাড়া বাসায় উঠতে হবে। আমি অবসরের প্রস্তুতি চাকুরির শেষ ৩ বৎসরে নিতে চেয়েছিলাম।
———————————————————————————————————————
Easternlink, a small journalist collective is no finance worth it, is not providing the translation because even those who dont understand Bengali can easily get this machine translated to get a hang of what it contains. In the centenary anniversary of the Bangabandhu, the Founding Father of the Nation and the father of Sheikh Hasina, the Awami League government can ignore the wrangling and factionalism within the army at its own peril.  Because if dissatisfaction multiplies at the command level, some adverse fallout cannot be ruled out.

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

Leave A Reply

Your email address will not be published.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More